মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:৩৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম
আশুলিয়া প্রেসক্লাব চত্বরে ককটেল বিষ্ফোরন সাভার ও আশুলিয়ায় র‌্যাবের অভিযানে বিদেশী বিয়ার ও ট্যাপেন্টাডল ও অস্ত্র সহ ৬জন আটক দুই শিক্ষার্থীকে বেঁধে মারধর, শিক্ষক আটক চলমান মহামারিই শেষ নয়, ভবিষ্যতের জন্যেও বিশ্বকে প্রস্তুত থাকতে হবে : ডব্লিওএইচও দেশের বিভিন্ন রুটে কমিউটার, মেইল, এক্সপ্রেস এবং লোকাল ট্রেন পরিচালনার সিদ্ধান্ত দেশে করোনা সংক্রমণ কমেছে।। সরকার পরিবর্তন চাইলে বিএনপিকে নির্বাচন পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।।কাদের জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় প্রতিশ্রুত চাঁদার পরিমাণ বাড়াতে হবে : প্রধানমন্ত্রী চাঁপাইনবাবগঞ্জে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা আজ জিসিএ’র আঞ্চলিক কার্যালয়ের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

পদ্মা সেতু নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় গুজবের দায়ে আটক ৫

  • সর্বশেষ আপডেট শনিবার, ১৩ জুলাই, ২০১৯, ৮.২১ এএম
  • ২০ বার পড়া হয়েছে

আলোকিত কন্ঠ ডেস্ক:‘ সাম্প্রতিক সময়ে পদ্মা সেতু নির্মাণে মানুষের মাথা লাগবে’ সোশ্যাল মিডিয়ায় এমন গুজবে সাধারন মানুষের মনে আতঙ্ক তৈরি করছে একটি কু-চক্রি মহল।গুজব প্রতিরোধে সারাদেশে মাঠে মাঠে নেমেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে ৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

র‌্যাব সদর দপ্তর থেকে জানানো হয়, গুজবের তদন্তে নামে সাইবার মনিটরিং সেল। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কয়েকটি ফেসবুক আইডি সনাক্ত করা হয়। এসব আইডি থেকে পদ্মা সেতু সংক্রান্ত মানুষের মাথা লাগবে এরকম গুজব ছড়ানো হয়। পদ্মা সেতু নির্মাণকাজে মানুষের মাথা লাগবে যা সংগ্রহে দেশের বিভিন্ন স্থানে বিষাক্ত স্প্রে পার্টির বের হয়েছে বলে গুজব ছড়ায়। যা সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে ভাইরাল হয়। জনমনে ভীতি সঞ্চার হয়। পরে র‌্যাব গোয়েন্দারা কড়া নজরদারি অব্যাহত রাখে এবং দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ৫ জনকে গ্রেপ্তার করে।

র‌্যাবের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, মো. আকরাম হোসেনকে ১১ জুলাই আশুলিয়ার ইপিজেড এলাকায় অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করা হয়। নিউজআই টুয়েন্টিফোর ডটকম নামে নিউজ পোর্টাল থেকে এরকম একটি ভিত্তিহীন গুজব পোস্ট করা হয়।

আকরামের দেয়া তথ্যে শুক্রবার দুপুরে চট্টগ্রাম জেলার আনোয়ারা থানার তৈলারদ্বীপ সাকিন তৈলারদ্বীপ সার্কুরাল রোডের পাশের একটি বাড়ি থেকে মো. শহিদুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার দেওয়া তথ্যে মো. আরমান হোসাইনকে একই এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

বৃহস্পতিবার রাতে মৌলভীবাজার জেলার সদর থানার নতুন বাজার রোড এলাকা থেকে মো. ফারুক এবং সর্বশেষ শুক্রবার দুপুরে কুমিল্লার লাকসাম থানার আশাগী এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে মো. হায়াতুন নবী ওরফে নবীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

আক/রিফাত

আপনার মতামত দিন:

শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরও সংবাদ
themebaalokitokant1852550985
©2019-20 All rights reserved Alokitokantho