শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০৮:১৭ পূর্বাহ্ন

আশুলিয়া থানার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা মামলার আসামী বগুড়া থেকে আটক

  • সর্বশেষ আপডেট মঙ্গলবার, ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১১.১৩ এএম
  • ৬৩ বার পড়া হয়েছে

সাভার প্রতিনিধিঃ রাজধানী ঢাকার অদূরে আশুলিয়ায় স্বামীকে তালাক দেয়ায় স্ত্রীর ছবি সম্পাদন করে স্বজনদের মুঠোফোনসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরালের অভিযোগে এক বখাটে হ্যাকারকে আটক করেছে পলিশ।

মঙ্গলবার ভোরে আশুলিয়া থানা পুলিশ মুঠোফোনে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে আসামীর অবস্থান সনাক্তের পর তাকে বগুড়া সদর থানা এলাকা থেকে আটক করেছে।

আটককৃত তানভীর হোসেন নাঈম (২৫) বগুড়া জেলার সদর থানাদীন ফুলবাড়ী গ্রামের আবু তালেবের ছেলে।

আশুলিয়া থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রামকৃষ্ণ দাস বলেন, ২০১৬ সালে তানভীরের সাথে কাজী ফারিয়া ইয়াসমিন শান্তার প্রেমের সম্পর্কের মাধমে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই তাদের মধ্যে বনিবনা না হওয়ায় চলতি বছরের আগস্ট মাসের ৯ তারিখ শান্তা তাকে তালাক প্রদান করে। স্ত্রী তালাক প্রদানের পর থেকেই পূর্বের ধারনকৃত বিভিন্ন ছবি সম্পাদন করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম- ফেইসবুক, ইমু ও ম্যাসেঞ্জারে ছড়িয়ে শান্তা ও তার পরিবারকে ব্ল্যাকমেইল করতে থাকে। এই ঘটনার পর শান্তা বাদী হয়ে ৩০ আগস্ট আশুলিয়া থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা (৭১ নং) দায়ের করেন।
তিনি আরো জানান, জব্ধকৃত আলামত পরীক্ষার জন্য সিআইডির ফরেনসিক শাখায় প্রেরনের পাশাপাশি আটককৃত আসামীকে পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের সময় চেয়ে বুধবার সকালে ঢাকার চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেটের আদালতে প্রেরন করা হবে।

আশুলিয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ রিজাউল হক দিপু বলেন, থানায় অভিযোগ দায়েরের পর থেকেই মুঠোফোনে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে আসামীর অবস্থান সানাক্ত করে মঙ্গলবার ভোরে বগুড়া সদর থানা পুলিশকে সাথে নিয়ে অভিযান চালিয়ে আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) রাম কৃষ্ণ দাস তাকে আটক করেন। এসময় তার নিকট থেকে ২টি মুঠোফোন, এটি পেন ড্রাইভ ও একটি মেমোরি কার্ড জব্ধ করা হয়। আসামী তানভীর হোসেন নাঈম একজন হ্যাকার। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, ই-মেইলসহ বিভিন্ন ফেইসবুক আইডি অতি সহজেই হ্যাক করতো।

আপনার মতামত দিন:

শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরও সংবাদ
themebaalokitokant1852550985
©2019-20 All rights reserved Alokitokantho